BIGtheme.net http://bigtheme.net/ecommerce/opencart OpenCart Templates
সর্বশেষ
Home / সারাদেশ / ঢাকা / গৃহবধূকে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ, স্বামী গ্রেপ্তার

গৃহবধূকে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ, স্বামী গ্রেপ্তার

কিশোরগঞ্জের নিকলী উপজেলায় এক গৃহবধূকে কুপিয়ে হত্যা করে গাছে ঝুলিয়ে রাখার অভিযোগ উঠেছে। নিহত গৃহবধূর পরিবারের দাবি, স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজন তাঁকে হত্যা করেছে। আজ সোমবার সকালে পুলিশ গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করেছে।

নিহত গৃহবধূর নাম সেলিমা বেগম (২৮)। ওই ঘটনায় সেলিমার বড় ভাই জামাল মিয়া বাদী হয়ে নিকলী থানায় একটি মামলা করেছেন। পুলিশ স্বামী বরজু মিয়াকে (৩৫) গ্রেপ্তার করেছে।

পুলিশ ও সেলিমার পরিবার সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার সিংপুর ইউনিয়নের টেংগুরিয়া গ্রামের আশরাফ আলীর ছেলে বরজু মিয়ার সঙ্গে সেলিমা বেগমের বিয়ে হয়। তিনি রশিদাবাদ ইউনিয়নের সিমন্তপুর গ্রামের সুবেদ আলীর মেয়ে। ১০ বছরের দাম্পত্য জীবনে তাঁদের দুটি সন্তান রয়েছে।

সেলিমার পরিবার দাবি করেছে, বিয়ের পর থেকেই বাবার বাড়ি থেকে টাকা এনে দেওয়ার জন্য স্ত্রীকে চাপ দিতেন স্বামী বরজু মিয়া। টাকা না দিলেই স্বামী, শ্বশুরসহ শ্বশুরবাড়ির লোকজন সেলিমার ওপর শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন চালাতেন। সেলিমা বেশ কয়েকবার বাবার বাড়ি থেকে টাকা এনে দিয়েছেন। গতকাল রোববার স্বামী তাঁকে বাবার বাড়ির অংশ বিক্রি করে টাকা এনে দিতে বলেন। এতে রাজি না হওয়ায় তাঁকে দা দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করেছেন স্বামী ও তাঁর পরিবারের লোকজন। পরে লাশের গলায় দড়ি পেঁচিয়ে বাড়ির পাশে খালের পাড়ে একটি গাছের ডালে ঝুলিয়ে আত্মহত্যা বলে প্রচার করা হয়।

নিকলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুঈদ চৌধুরী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, নিহত সেলিমার মাথায় দায়ের দুটি কোপ ও পিঠে একটি কোপ রয়েছে। আসামিরা বরজু মিয়ার ঘাড়েও রক্তের দাগ পাওয়া গেছে। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কিশোরগঞ্জ আধুনিক সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

ওসি জানান, এ ঘটনায় নিহত গৃহবধূর বড় ভাই জামাল মিয়া আজ দুপুরে বাদী হয়ে চারজনের বিরুদ্ধে থানায় হত্যা মামলা করেছেন। এতে স্বামী বরজু মিয়াকে প্রধান আসামি করা হয়েছে। তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্য আসামিরা পলাতক।

Facebook Comments